মাঝে মাঝেই দেখি আইডি ডিজেবল বা সাস্পেন্ড এর পোষ্ট দিয়ে অনেকেই দুঃখ প্রকাশ করেন।১২ টি টিপস আমার ফাইবার লাইফের অভিজ্ঞতা থেকে শেয়ার করলাম। আশা করি আপনারা মেনে চলতে পারলে আপনাদের ফাইবার আইডি টি সেফ রাখতে পারবেন।

১। একিই ডিভাইসে বা আইপিতে লাইক কম্পিউটারে ও একিই ওয়াইফাই এ বা ব্রডব্যান্ড লাইনের ইন্টার্নেটে একাধিক ফাইবার আইডি চালানো যাবেনা। কোনো নটিফিকেশিন ছাড়াই ব্যান খাবেন। তবে সার্ভিস আলাদা আলাদা হলে চালানো যেতে পারে।

২। ফাইবারের গিগের জন্য ইমেজ বা কন্টেন নিজের হতে হবে কপি যেন না হয়।

৩। ভুলেও নিজের কন্টাক্ট ইনফরমেশন লাইক ইমেইল, মোবাইল, লিঙ্ক দেওয়া যাবেনা ।

৪। ক্লাইন্টের সাথে সর্বদা ভালো আচরন করতে হবে। ক্লাইন্ট যতই খারাপ ব্যবহার করুক না কেন সেগুও এড়িয়ে চলার চেষ্টার করতে হবে।প্রতিবেশী দেশের কিছু ক্লাইন্টকে বুদ্ধির সাথে এড়িয়ে যেতে হবে।

৫। ডিটেইলস না বুঝে ক্লাইন্টের থেকে অর্ডার নেওয়া যাবেনা, আর অর্ডারের দিটেইলস না বুঝে অর্ডার ডেলিভারি দেওয়া যাবেনা,

৬। ভুলেও ব্লাংক ডেলিভারি দেওয়া যাবেনা, আমার অনেকেই ইচ্ছে করে ব্লাঙ্ক ডেলিভারি দিয়ে থাকি,

৭। ক্লাইন্টকে কপিরাইট কোনো কাজ দেওয়া যাবেনা, দিলেও ক্লাইন্ট কে জানাই দিতে হবে।

৮।ক্লাইন্টের কাছে ফিডব্যাক চাওয়া যাবেনা।ভিডব্যাক যদি খারাপ দেই তবে ফিডব্যাক পরিবর্তন করার জন্য বারবার বলা বা চাপ সৃষ্টি করা যাবেনা, ফিডব্যাক খারাপ দিয়েছে বলে ফাইনাল ফাইল দিতে অস্বীকার করা যাবেনা।

৯। ফাইবারের বাইরে কাজ করার জন্য বা পেমেন্ট দেওয়ার জন্য ক্লাইন্টকে রিকুয়েস্ট করা বা পরামর্শ দেওয়া।

১০। একিই পেওনিয়ার বা পেপাল একাধিক ফাইবার আইডিতে ব্যবহার করা।

১১। কাছাকাছি এলাকায় কোনো ফাইবার আইডিতে অর্ডার দেওয়া বা নেওয়া, ফিডব্যাক এক্সচেঞ্জ করা বা এ সম্পর্কে অন্য কোনো সেলার কে মেসেজ করা।

১২। বার বার কোনো সেলার বা বায়ার কে কাজ দেওয়ার জন্য রিকুয়েস্ট করা।যথা সম্ভব অর্ডার ক্যান্সিলেশন এড়িয়ে চলা।আরো কিছু টিপস বাকি আছে বলে মনে হচ্ছে। আপনাদের জানা আরো কিছু টিপস থাকলে শেয়ার করবেন প্লিজ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here