www.fiverr.com এ আপনাদের স্বাগতম। এটা এমন একটা মার্কেটপ্লেস যেখানে বিভিন্ন ধরনের সেবা আদান প্ররান করা হয়। তবে আপনাকে অবশ্যই নিন্মবর্ণিত শর্তগুলো মেনে ফাইভার ব্যাবহার করতে হবে। সুতরাং এই মার্কেটপ্লেস ব্যাবহার শুরু করার আগে এখানে সেবা আদান প্রদানের শর্তগুলো ভাল করে পড়ে নিন।

  1. এই সাইট ব্যাবহার করা, একাউন্ট খোলা অথবা “Accept or agree to the Terms of Service” বাটনে ক্লিক করার মানে হচ্ছে আপনি ফাইভারের “Terms of Service” অর্থাৎ সেবা আদান প্রদানের শর্তগুলো মেনে নিয়েছেন এবং একমত পোষণ করছেন। আপনি যদি এই শর্তগুলোর সাথে একমত পোষণ না করেন তবে এই সাইট ব্যাবহার করা এমনকি সাইটে প্রবেশ করা থেকেও বিরত থাকুন।
  2. এই সাইট ব্যাবহার করার জন্য আপনার বয়স অবশ্যই ১৩ বছর বা তার বেশি হতে হবে। এর নিচে হলে এখানে সেবা আদান প্রদান করতে হলে পিতামাতার অনুমতি লাগবে। কারন, আপনি যখন এই সাইট ব্যাবহার করছেন তার মানে দাড়াচ্ছে যেকোন আন্তর্জাতিক ডিল করার জন্য আপনার বয়স আঈনত বৈধ। সুতরাং আপনার বয়স যদি ১৩ বছরের কম হয় তবে এই সাইট আপনার ব্যাবহার করা উচিৎ নয়।
  3. ফাইভারের কাস্টমার সাপোর্ট সেন্টার দিনে ২৪ ঘন্টা এবং সপ্তাহে ৭ দিনই খোলা আছে। ফাইভার সাইট নিয়ে অথবা শর্তাবলী নিয়ে যদি কোন প্রশ্ন থাকে তবে যোগাযোগ করুন। (উল্লেখ্য এটা লাইভ সাপোর্ট না)

মূল শর্তাবলীঃ

  • ফাইভারে প্রদত্ত সেবাগুলোকে  Gig®  বলা হয়।
  • গিগের মাধ্যমে যারা সব সার্ভিস বা সেবা প্রদান করে থাকেন তাদের  Sellers বলা হয়।
  • যারা এই সার্ভিসগুলো কেনে তাদেরকে  Buyer বলা হয়।
  • Gig Page হচ্ছে সেই যায়গা যেখানে একজন সেলার কি কি সেবা দিতে চান (বা কাজ করতে চান) সেগুলোর বিস্তারিত বর্নান দেয়া থাকে, আর ক্লায়েন্ট সেখান থেকে গিগ কিনে সেবা (বা কাজ) অর্ডার করেন।
  • Gig Extra হচ্ছে মুল কাজের সাথে সম্পর্কযুক্ত অতিরিক্ত কিছু সেবা যেগুলো গিগের নিচে আলাদা ভাবে একজন সেলার যুক্ত করেন। (এই সেবার জন্য ক্লায়েন্টকে আলাদা চার্জ করা হয়)
  • একাধিক সেবার জন্য Gig Extras থেকে অর্ডার না করে যদি একই গিগ বার বার অর্ডার করা হয় তবে তাকে Gig Multiples বলে।
  • Gig Packages হচ্ছে একাধিক সার্ভিস একত্রে অফার করা। এর সুবিধা হচ্ছে একই গিগে ভিন্ন ভিন্ন দামে ভিন্নি ভিন্ন সার্ভিস সাজিয়ে রাখা যায়। অনেকটা আমরা মোবাইলে যেমন বান্ডেল প্যাক কিনি তেমন। ফাইভারে একটা গিগে সর্বোচ্চ ৩ টা পেকেজ এড করা যায়।
  • Custom Offers হলো এমন বিশেষ প্রস্তাব (Price Quote) যেটা ক্লায়েন্টের কিছু নির্দিষ্ট চাহিদার প্রেক্ষিতে একজন সেলার ক্লায়েন্ট কে অফার করে।
  • একজন সেলারের কাছ থেকে Custom Offer পাবার জন্য একজন বায়ার যখন তার চাহিদার বিস্তারিত বিবরন দিয়ে সেলার কে মেসেজ দেয় তখন তাকে Custom Order বলে। কিন্তু বায়ার যদি গিগ ভিজিট করে “Contact me” অপশন থেকে মেসেজ দেয় তবে সেটা সাধারন মেসেজ। আর যদি প্রফাইল ভিজিট করে সর্বশেষ গিগের পাশে “Request a Custom Order” অপশন থেকে মেসেজ দেয় তবে সেটা হবে Custom Order (এদের মাঝে মৌলিক কোন পার্থক্য নেই) উভয় ক্ষেত্রেই রিপ্লাই দেয়ার সময় কাস্টম অফার পাঠানো যাবে।
  • Order হচ্ছে ক্লায়েন্ট ও সেলারের মাঝে আনুষ্ঠানিক চুক্তি (যখন কোন গিগ অর্ডার করা হয়)
  • Disputes হচ্ছে একটি অর্ডার চলাকালীন সময়ে বায়ার ও সেলারের মাঝে চলমান মতবিরোধ যেকোন ধরনের ঝগড়া বা মতবিরোধ।
  • Revenue হচ্ছে সেই পরিমান টাকা যেটা একজন সেলার অর্ডার কমপ্লিট হবার পর উপার্জন করেন।
  • Sales Balance হচ্ছে সেই পরিমান Revenue যেটা ক্লিয়ার হয়ে একাউন্টে জমা হয় এবং সেলার চাইলে যেকোন সময় তুলতে অথবা (ফাইভারে) খরচ করতে পারেন। (উল্লেখ্য ফাইভারে অর্ডার কমপ্লিট করার ১৪ দিন পর ডলার Sales Balance এ যোগ হয়। তবে টপ রেটেড সেলারদের ৭ দিন পর যোগ হয়)
  • Shopping Balance হচ্ছে ফাইভার থেকে কেনাকাটা করার মত ক্রেডিট যেটা পূর্বের কোন অর্ডার কেন্সেল হবার ফলে ক্লায়েন্টের একাউন্টে ফিরে এসেছে। এছাড়া ফাইভারের পক্ষ থেকে গিগের মাধ্যমে সার্ভিস কেনার জন্য যে প্রমোশনাল অফার দেয়া হয় তাকেও Shopping Balance বলে।

মুল শর্তসমূহের সংক্ষিপ্ত বিবরনঃ

  • শুধুমাত্র রেজিস্টার্ড (নিবন্ধিত) বেহারকারীরাই ফাইভারে সেবা আদান প্রদান করতে পারবেন।(রেজিস্ট্রেশন ফ্রি)
  • ফাইভারের গিগ প্রাইস বা সেবার মূল্য ৫ ডলার থেকে শুরু হবে। সেলার চাইলে কোন কোন গিগের Starting Price ৫ ডলারের বেশিও সেট করতে পারবে।
  • যখন একটা গিগ অর্ডার হয় তখন ক্লায়েন্ট ফাইভারকে গিগের সম্পূর্ণ মূল্য অগ্রিম পরিশোধ করে দেন।
  • গিগ পেইজের “Order Now” বাটন ব্যাবহার করে গিগ অর্ডার করা যায় অথবা ইনবক্সে “Custom offer” পাঠিয়েও অর্ডার করা যায়। (গিগের ফি এবং চার্জ এর ব্যাপারে “purchasing section” এ বিস্তারিত আলোচনা করা হবে)
  • সেলারকে অবশ্যই সঠিক সময়ে সঠিক ভাবে কাজ করে জমা দিতে হবে এবং অকারণে নিয়মিত অর্ডার কেন্সেল করা যাবে না। বেশি পরিমানে অর্ডার কেন্সেলেশন সেলারের রেপুটেশন নষ্ট করে এবং গিগের রেঙ্কের উপর বিরূপ প্রভাব ফেলে। (তবে মাঝে মধ্যে বাবায় ও সেলার উভয়ের সম্মতিতে অল্প সংখ্যক অর্ডার কেন্সলে হলে সমস্যা নেই)
  • যোগ্যতা, সামর্থ্য ও কর্মদক্ষতার ভিত্তিতে একজন সেলার কে বিভিন্ন রেঙ্ক (লেভেল) দেয়া হয়। 
  • একজন সেলার ফাইভারে অর্ডার পাওয়া ছাড়া ক্লায়েন্টের কাছ থেকে অন্য কোনভাবে পেমেন্ট নিতে পারবে না। (এমনকি ক্লায়েন্ট অফার করলেও নেয়া যাবে না)
  • অর্ডার ডেলিভারি দেবার পর সেখানে সম্পূর্ণ কতৃত্ব ক্লায়েন্টের। অর্থাৎ ক্লায়েন্ট কাজ গ্রহন না করলে ফাইভার ক্লায়েন্ট কে কোন ধরনের জোর করবে না।
  • মার্কেটিং ও প্রমোশনের জন্য ডেলিভারি দেয়া সব কাজ বা কাজের স্যাম্পল ফাইভার ব্যাবহার করার অধিকার রাখে। 

SELLERS

  • সেলাররা গিগ বানানোর মাধ্যমে ক্লায়েন্ট কে তার সার্ভিস কেনার অনুমতি দিয়ে থাকেন।
  • বায়ারের সাথে কথা বলার পর সেলার চাইলে ক্লায়েন্টকে ইনবক্সেই সরাসরি “Custom Offer” সেন্ড করতে পারেন।
  • প্রতিটি কাজ সফল ভাবে সম্পন্ন হবার পর অর্ডারের ২০% ফাইভার ফি হিসেবে কেটে রাখে এবং ৮০% সেলারের একাউন্টে জমা হয়। (অর্ডার নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা সামনে আসবে ইনশা আল্লাহ্‌!)
  • কোন অর্ডার যদি কোন কারনে কেন্সেল হয়ে যায় তবে সেই অর্ডারের ডলার ক্লায়েন্টের শপিং বেলেন্সে যোগ হবে।
  • কোন অর্ডার কমপ্লিট হবার ১৪ দিন পর সেলার সেই অর্ডার থেকে আয়কৃত রেভিনিউ তুলতে পারবেন। তবে টপ রেটেড সেলাররা ৭ দিন পর তুলতে পারবেন। এই সময়ের মাঝে যদি কোন ক্লায়েন্ট ফিরে এসে কাজ নিয়ে কমপ্লিন করে আর সেটি যথাযথ হয় তবে সম্পূর্ণ ডলার তাকে ফেরত দেয়া হবে। (আসল কথা হচ্ছে ক্লায়েন্ট সাপোর্টে কমপ্লিন করলেই সব ফেরত দিতে হবে)
  • সেলার “AdWords platform” এর মাধ্যমে গিগ প্রমোট বা মার্কেটিং করতে পারবে না। (AdWords platform কি সেটা না বুঝলে গুগলে সার্চ করুন)
  • ফাইভারের রেভিনিউ তোলার জন্য ফাইভার নির্ধারিত যেকোন মেথড ব্যাবহার করা যাবে।
  • প্রতিটা অর্ডার কমপ্লিট হবার পর ক্লায়েন্ট অর্ডার পেজে রিভিউ দিতে পারবে। এবং ক্লায়েন্টের রিভিউর উপর নির্ভর করে সেলারের রেটিং পরিমাপ করা হবে। যে কোন লেভেল (রেঙ্ক) পেতে হলে নির্দিষ্ট পরিমান রেটিং থাকতে হবে। (রেঙ্ক সেকশনে এটা নিয়ে আরো বিস্তারিত আলোচনা করা হবে)
  • প্রতারণামূলক বা অবৈধ কার্যকলাপ রোধ করতে কখনো কখনো ফাইভার সাময়িকভাবে রেভিনিউ তোলার অপশন ডিজেবল করে দেয়। এটা নিরাপত্তা জনিত কারনে হতে পারে। অর্থাৎ একাউন্টে যদি কোন অস্বাভাবিক কার্যক্রম হয়, যদি বায়ার রিপোর্ট করে অথবা একই পেমেন্ট ডিটেইলস যদি একাধিক একাউন্টে যোগ করা থাকে তবে সেক্ষেত্রে এমনটা হতে পারে।

Gigs®

  • রেঙ্ক বা লেভেলের উপর ভিত্তি করে একজন সেলার নির্দিষ্ট পরিমান একটিভ গিগ পোষ্ট করতে পারবে।
  • একজন নতুন সেলার ৭ টা, লেভেল ১ সেলার ১৫ টা, লেভেল ২ সেলার ২০ টা এবং টপ রেটেড সেলাররা ৩০ টা গিগ তৈরি করতে পারবেন।

নিন্ম বর্ণিত কারনসমুহের যে কোন একটি পাওয়া গেলে ফাইভার  যে কোন সময় গিগ ডিলিট করে দিতে পারবে।

  1. অবৈধ বা প্রতারণাপূর্ণ সেবা প্রদান করা।
  2. Copyright  আঈন লঙ্ঘন, Trademark আঈন লঙ্ঘন, অথবা ফাইভারের “Intellectual Property Claims Policy” অনুযায়ী কোন ৩য় পক্ষের শর্ত ভঙ্গ করে সার্ভিস দেয়া (যেমন WordPress এর প্রিমিয়াম টেমপ্লেট অথবা থিম ক্রেক করে অল্প দামে ফাইভারে সেল করা)
  3. প্রাপ্ত বয়স্কদের কেন্দ্র করে কোন সার্ভিস প্রদান (যেমন পর্ণগ্রাফী)
  4. সরাসরি কারো গিগ কপি করা।
  5. স্পেমিং, আজেবাজে অথবা অযাচিত কোন সেবা প্রদান করা।
  6. এমন গিগ যেটা ক্লায়েন্ট কে বিভ্রান্ত করবে।
  7. কোন পণ্যের রিসেলিং করা। (Affiliate Marketing)
  8. এমন সেবা, যা প্রদান করতে ৩০ দিনের বেশি সময় লাগবে।

উপরে বর্ণিত যেকোন কারনে কোন গিগ ফাইভার কতৃক ডিলেট করা হলে ফাইভার সেই একাউন্ট সাসপেন্ড করার ক্ষমতা রাখেন। (সুতরাং সাবধান)

  • নিয়ম ভঙ্গের ফলে ডিলেট করে দেয়া কোন গিগ পুনরায় ফিরে পাওয়া বা এডিট করা যাবে না।
  • পারফর্মেন্স খারাপ হলে ফাইভারের সার্চ থেকে গিগ উধাউ করে দেয়া হবে।
  • “Gig description” ও “Requirements box”  এ ফাইভার অনুমতি দেয় এমন ওয়েবসাইটের লিঙ্ক ব্যাবহার করা যাবে। এছাড়া অন্য কোন ওয়েবসাইটের লিঙ্ক থাকলে গিগ একটিভ হবে না। যদি এমন কোন লিঙ্ক প্রফাইলে থাকে তবে সেটা প্রফাইল থেকে মুছে দেয়া হবে। আর ঘাউড়ামী করে বার বার এই কাজ করলে প্রফাইল “Restricted ” করে দেয়া হবে 
  • ফাইভারের শর্তের সাথে সাংঘর্ষিক এমন যে কোন গিগ ফাইভার মুছে দেবে।
  • গিগ পোষ্ট করার সময় গিগে প্রদত্ত সার্ভিষের সাথে মিল রেখে গিগ ইমেজ আপলোড করতে হবে। একজন সেলার প্রতিটা গিগে ২ টা ছবি আপলোড করতে পারবেন।
  • ফাইভারের নিয়ম মেনে গিগে ভিডিও আপলোড করা যাবে। 
  • গিগে এমন কোন বক্তব্য দেয়া যাবে না যা ফাইভারের শর্তসমূহের বিরোধিতা করে।
  • সেলার চাইলে গিগের “Starting Price”  $5, $25, $50 অথবা $100 সেট করতে পারবে।
  • চাইলে বিভিন্ন পেকেজ আকারেও গিগের মূল্য সেট করে দেয়া যাবে।

Gig Extras:

  • Gig Extra হচ্ছে মুল কাজের সাথে সম্পর্কযুক্ত অতিরিক্ত কিছু সেবা যেগুলো গিগের সাথে আলাদা ভাবে একজন সেলার যুক্ত করেন। (এই সেবার জন্য ক্লায়েন্টকে আলাদা চার্জ করা হয়)
  • “Gigs®” সেকশনে যে শর্তগুলো আলোচনা করা হয়েছে সেই শর্তগুলো ভঙ্গে হলে ফাইভার যেকোন Gig Extra মুছে দিতে পারবে। এমনকি এই জন্য ফাইভার চাইলে গিগটাই রিমুভ করে দিতে পারবে।
  • সেলারের লেভেলের উপর ভিত্তি করে গিগ এক্সটার পরিমান কম বেশি হবে। 
  • নতুন সেলারঃ ১ টা গিগে ২ টা গিগ এক্সট্রা এড করতে পারবেন। একটা গিগ এক্সটা  $20 ডলারের বেশি হওয়া যাবে না।
  • লেভেল 1 সেলারঃ ১ টা গিগে ৪ টা গিগ এক্সট্রা এড করতে পারবেন। একটা গিগ এক্সটা  $4০ ডলারের বেশি হওয়া যাবে না।
  • লেভেল 2 সেলারঃ ১ টা গিগে 5 টা গিগ এক্সট্রা এড করতে পারবেন। একটা গিগ এক্সটা  $50 ডলারের বেশি হওয়া যাবে না।
  • “Top Rated” সেলারঃ ১ টা গিগে 6 টা গিগ এক্সট্রা এড করতে পারবেন। একটা গিগ এক্সটা  $100 ডলারের বেশি হওয়া যাবে না।
  • গিগ এক্সটা তে যে সেবা অফার করা হবে তা অবশ্যই মুল গিগের সাথে সম্পর্কযুক্ত হতে হবে।
  • প্রতিটি গিগ এক্সটা তে আলাদা আলাদা ভাবে বাড়তি সময় যোগ করা যাবে।

আপাতত এ পর্যন্তই। এখানে কিছু বিষয় অতি সাধারন এবং অপ্রয়োজনীয় মনে হতে পারে। কিন্তু আমরা সবাই জানি নিয়ম কানুনের দিক থেকে ফাইভার কতটা কঠোর এবং কত তুচ্ছ কারনে তারা সেলারের আইডি সাসপেন্ড করে। তাই সবার কাছে অনুরোধ লেখাটা শুধু থেকে শেষ পর্যন্ত ভাল করে পড়বেন।এখানে যা আলোচনা হয়েছে এর মধ্যে কারো কোন কনফিউশন থাকলে কমেন্টে প্রশ্ন করুন। কোন তথ্য ভুল মনে হলে সেটাও জানাতে পারেন। সংশোধন করে দেবো ইনশা আল্লাহ্‌!এই পরিমান লেখলে আরো ৫-৬ পর্বে শেষ করতে পারবো আশা করা যায়। সে পর্যন্ত ভাল থাকুন, সুস্থ থাকুন, আর হালাল উপায়ে উপার্জন করুন এই দোয়া রইলো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here