প্রাথমিক পর্যায়ে ইনকাম সম্ভব নয়। আপনাকে আগে ভালো কন্টেন্ট নিয়ে ভিডিও বানিয়ে একটা চ্যানেল দাঁড় করাতে হবে। যদি চ্যানেল জনপ্রিয়তা পেয়ে যায় তাহলে আপনাকে আর কিছু করতে হবে না।

ভিডিও মানসম্মত না হলে ইনকাম করা অসম্ভব হয়ে পড়বে। আর ইউটিউবের কিছু গাইডলাইন আছে যেইগুলাও আপনাকে মেনে চলতে হবে।

ইউটিউব থেকে ইনকাম করা খুব কঠিন কিছু নয়। শুধু আপনাকে ধৈর্য্য ধরে ভালো ভিডিও বানাতে হবে আর নিয়ম মেনে চলতে হবে।

ইউটিউব থেকে রোজগার করার দুইটি পদ্ধতি রয়েছেঃ

  1. গুগল এডসেন্স এর মাধ্যমে রোজগার।
  2. এফিলিয়েট মার্কেটিং এর মাধ্যমে রোজগার।

আপনি যদি ১ নম্বর পদ্ধতিতে রোজগার করতে চান, তাহলে আপনার চ্যানেলে প্রয়োজন প্রচুর ভিউ। এখনকার সময়ে নিম্নোক্ত ক্যাটেগরির চ্যানেল গুলো খুব ভালো করছেঃ

  • গেমিং চ্যানেল।
  • কিডস চ্যানেল।
  • ভ্লগিং চ্যানেল।
  • মেকাপ চ্যানেল।
  • প্রিমিটিভ চ্যানেল।

আপনি এই গুলোর যেকোন একটির মাধ্যমে ইউটিউব থেকে রোজগার করতে পারেন। এরজন্য আপনাকে খুব স্মার্টলি কাজ করতে হবে। প্রথম দিকেই অনেকে হতাশ হয়ে পড়ে, কারণ ৪হাজার ঘন্টা ওয়াচ টাইম এবং ১ হাজার সাবস্ক্রাইবারস ছাড়া এডসেন্স এর মাধ্যমে রোজগার করা যায় না। তবে ঠিক মত কাজ করলে এই রিকোয়ারমেন্টস খুব সহজেই ফিল আপ করা যায়।

কিন্তু আপনি যদি এফিলিয়েট মার্কেটিং এর মাধ্যমে রোজগার করতে চান, তাহলে আপনি প্রথম দিন থেকেই রোজগার শুরু করতে পারবেন, কারণ এইক্ষেত্রে ওয়াচ টাইম কিংবা সাবস্ক্রাইবার্স এর কোন রিকোয়ারমেন্টস নেই।

তবে একটা কথা ঠিক যে, ইউটিউব থেকে রোজগার করা আজ থেকে ১/২ বছর আগে যেরকম সহজ ছিল, এখন আর সেরকম সহজ নেই। তা সত্ত্বেও আপনার আমার মত সাধারণ মানুষই হাজার হাজার ডলার রোজগার করছে প্রতিদিন ইউটিউব থেকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here