ফ্রিল্যান্সিং তরুণদের মাঝে যতটা আলোড়ন সৃষ্টি করেছে, আউটসোর্সিং ঠিক ততটাই কোম্পানিগুলোর নির্ভরতা বৃদ্ধি করেছে । কোম্পানিগুলোর সেলস্ এবং মার্কেটিং এখন উন্মুক্ত, অর্থাৎ ফ্রিল্যান্সারদের দিয়ে খুব সহজেই তারা প্রোডাক্ট এর অ্যাডভারটাইজ, সেলস্ এবং লিড জেনারেট করিয়ে নিতে পারে । কোম্পানিগুলো  ডিজিটালাইজড্ হওয়াতে দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে এই এ্যাফিলিয়েশন প্রোগ্রাম ।

এটি প্রথমদের জন্য সিপিএ বিপণনের আমার প্রথম গাইড (এই সিপিএ সিরিজের নিবন্ধটি)। সৎ হতে আমি আমার অনলাইন জীবন বেশিরভাগই সিপিএ অফারের মাধ্যমে আয় করি। আমি একবার একাধিক সিপিএ পণ্য কিনেছি যা আপনাকে XX, XXX করতে প্রতিশ্রুতি দেয় তবে শেষ পর্যন্ত আমি বুঝতে পারলাম যে আমি আমার টাকা নষ্ট করেছি। আপনি বিনামূল্যে এই গাইডটি পাচ্ছেন এবং আমি নিশ্চিত যে মিথ্যা প্রতিশ্রুতিগুলি দ্বারা পূরণ করা এই প্রদত্ত CPA পণ্যগুলির চেয়ে এটি অনেক ভাল। আমি আপনাকে গ্যারান্টি দিচ্ছি না যে আপনি শুরু থেকে $ XX, XXX তৈরি করতে পারেন। শুরুতে আপনাকে অনেক কিছু শিখতে হবে এবং সেগুলি প্রয়োগ করতে হবে। নির্দিষ্ট সময়ের পরে আপনি যখন অত্যন্ত দক্ষ এবং অভিজ্ঞ হন তখন আপনি সিপিএ নেটওয়ার্কের 5 টি চিত্র এবং এমনকি 6 টি চিত্র আয় করতে পারেন।

সর্বপ্রথম আপনি ভিডিওটি দেখতে পারেন

সিপিএ মার্কেটিং কি?

আপনারা অনেকেই হয়তো ভালোভাবে জানেন না অ্যাকশন কি জিনিস। তাদের জন্য আবারো বলছি কোন অফার কেনা, গেম অথবা কোনকিছু ডাউনলোড করা, কোন রোমান্টিক সাইটে সাইন আপ করা, অনলাইনে কোন গেম এর জন্য অ্যাকাউন্ট খোলা, ইমেইল আইডি দেয়া, সাবস্ক্রাইব করা এমনকি কোন সাইটে নিজের পোস্ট কোড দেয়াও এক একটা অ্যাকশন।

আরো সহজ ভাবে বলি – ধরুন আমার একটি রেস্টুরেন্ট আছে । আমি কিছু লোক খুঁজছি যারা আমার রেস্টুরেন্ট এর মার্কেটিং করবে। তাদের সাথে আমার কন্ট্রাক্ট আপনার মাধ্যমে যদি আমার দোকানে কেউ আসে অথবা প্রোডাক্ট কিনে থাকে তাহলে আপনাকে প্রতি কাস্টমার বা বিক্রি থেকে একটা কমিশন দেবো। যখন আপনি একজন কাস্টমার আমার রেস্টুরেন্টে নিয়ে আসলেন এই কাস্টমার নিয়ে আসাই হচ্ছে একটা একশন। আশা করি বুঝতে পেরেছেন। আর বিস্তারিত জানতে দেখুন সি.পি.এ মার্কেটিং কেন করবেন?

এই সব কিছুকে খুব সহজ ভাষায় বলতে গেলে যেটা দাঁড়ায় সেটা হল বিভিন্ন বড় বড় কোম্পানি তাদের সাইটে এই লিড গুলো নিয়ে দিলে আপনাকে কমিশন বা এক কথায় টাকা দেবে। এখানে সব থেকে সুবিধা টা হল টাকা পাবার জন্য তাদের কোন কিছু বিক্রির দরকার নেই, আপনি শুধু ট্রাফিক বাড়িয়ে দিতে পারলেই হবে। ওদিকে কোম্পানিরও কিন্তু লাভ আছে কারন তাদের নিজস্ব কিছু লিড মনেটাইজ করার কৌশল আছে যার মাধ্যমে যখন কেউ পেইড মেম্বার / সদস্য হয় অথবা কোন লিডের উন্নতি হয় তখন তারা ১০০% কমিশন নিয়ে নেয়।

এতক্ষণ সিপিএ মার্কেটিং এর বেসিক টা আমরা জানলাম। এখন চলুন একটু অ্যাডভানস এ যাই। উপড়ে যেই বিষয়টি বলা হয়েছে সেটা আমরা সবাই মোটামুটি জানি। এখন আসুন সিপিএ মার্কেটিং কি শুধু ছোট ছোট কাজ কেই বোঝানে হয়? প্রশ্নটা আসলেই অনেক গুরুত্বপূর্ণ কাড়ন আগে আমরা ভাবতাম ছোট ছোট যেই কাজ সেটাই সিপিএ মার্কেটিং । আপনি যদি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং সম্পর্কে জেনে থাকেন তাহলে জানেন যে কোন পণ্য যখন আপনি বিক্রি করবেন তখন ই আপনি কমিশন পাবেন । এখন আমার আমার প্রশ্ন হচ্ছে যদি আমি কোন পণ্য বিক্রি করে থাকি তাহলে সেটা কি একটা অ্যাকশন হচ্ছেনা? আশা করি উত্তর আসবে হ্যাঁ। আপনি সিঠিক বলেছেন কারণ যখন আমি কোন পণ্য বিক্রি করছি সেটাও অ্যাকশন হচ্ছে। সিপিএ মানে হচ্ছে যে কোন অ্যাকশন ফুলফিল হওয়া ।

সিপিএ তে কি কি অফার পাওয়া যায় ?

সিপিএ তে বিভন্ন ধরনের অফার এর মরধ্যে রয়েছে :

Pay per download: এ ধরনের অফার গুলো হয় সফটওয়ার ডাউনলোড,গেয়ম ডাউনলোড ইত্যাদি।

Pay per lead :এ ধরনের অফার গুলো হয় সাইন আপ,ইমেইল সাবমিট ইত্যাদি।

Pay per sale :এ ধরনের অফার গুলো হয় সেল জাতীয় যেমন হেল্‌থ, ইনসিওরেন্স ইত্যাদি।

এছারা আরও বিভিন্ন অফার রয়েছে। যেমন: Financial,Casual Dating,Health and Beauty,Gaming,PIN Submit,Survey,Mobile App,Travel,Ecommerce ইত্যাদি।

কোন ধরনের ব্যক্তি সিপিএ মার্কেটিং শিখতে পারবেন?

১। ইন্টারনেট সম্পর্কে যার নুন্যতম জ্ঞান রয়েছে
২। যিনি অনলাইন থেকে আয় করতে ইচ্ছুক
৩। যিনি কম্পিউটার এ ৩ থেকে ৪ ঘন্টা সময় দিতে পারবেন

অ্যাফিলিয়েট অথবা সিপিএ (CPA) মার্কেটিং শেখার জন্য ১ বছর অথবা ৬ মাস এর কোন ডিগ্রী ভিত্তিক কোর্স এর দরকার নেই। ভালো কোন আইটি ফার্ম থেকে ২ বা ৩ মাসের কোর্স এ যথেস্ট!

(CPA) মার্কেটিংকরার জন্য কি কিদরকার?

ওয়েবসাইট – (CPA) মার্কেটিং করার জন্য আপনার একটি ওয়েব সাইট থাকতে হবে! এই কথাটি শুনেই হইত অনেকেই হতাশ হবেন! কিন্তু হতাশ হবার কিছু নেই। শুধু মাত্র একটি ব্লগ সাইট খুলেও আপনি (CPA) মার্কেটিং করতে পারবেন। অথবা কোন ওয়েব সাইট এর সাব ডোমেইন (যা কিনা একদম ফ্রী তে খোলা যায়) দিয়ে আপনি (CPA) মার্কেটিং করতে পারেন!

CPA মার্কেটিং এর কিছু শব্দ

Advertiser: এটা হল সেই সাইট বা ব্যক্তি যারা CPA নেটওয়ার্ক এর মাধ্যমে প্রোডাক্ট বা সার্ভিসের বিজ্ঞাপণ দিয়ে থাকে। হতে পারে সে রিটেইলার, অনলাইন রিটেইলার অথবা মার্চেন্ট।

Publisher: এটা হল সেই ব্যাক্তি বা সাইট যারা কমিশনের জন্য কোন প্রোডাক্ট বা সার্ভিস প্রোমোট করে থাকে। সহজ কথায় এক্ষত্রে আপনি, আমিই সেই পাবলিশার।

PPL (Pay-Per-Lead): সহজ ভাষায় আপনাকে প্রতিটা লিড এর জন্য পে করা হবে।ধরুন- আপনি কোন এডভার্টাইজার এর প্রোডাক্টের বিজ্ঞাপণ আপনার সাইটে ব্যানার হিসাবে রাখলেন। পরবর্তিতে আপনার সাইট থেকে ১০ জন ভিজিটর ঐ বিজ্ঞাপণে ক্লিক করে এডভাটাইজারের সাইটে গেল। এর মধ্যে ধরি ১ জন নাম ও ইমেল এড্রেস দিয়েএকটি ফর্ম পুরন করল। তার মানে আপনি ১টি লিড পেয়ে গেলেন এবং আপনাকে এই ১টিলিডের জন্য পে করা হবে।(এক্ষেত্রে প্রোডাক্ট বা সার্ভিস সেল করা আবশ্যিক নয়, শুধুমাত্র রেজিষ্টেশন নয় ফরম পুরনের জন্য আপনাকে পে করা হবে).

PPC (Pay-Per-Click):  এটা হল সেই কমিশন বা নিদিষ্ট টাকা যা পাবলিশারকে পে করা হয়ে থাকে তার সাইটে থাকা প্রোডাক্টের ব্যানার বা লিঙ্কে প্রতিটা ক্লিকের জন্য। উদাহরন হিসাবে গুগল এডসেন্স এর কথা বলা যেতে পারে।

সিপিএ থেকে মাসে কত টাকা ইনকাম করা যাবে?

এটা নির্ভর করবে আপনি কত ইনকাম করতে চান তার টার্গেট এর উপর।  আপনার ইনকাম টার্গেট যতবেশী হবে আপনার বিনিয়োগ বাড়াতে হবে। তবে আপনি বিনিয়োগ ছাড়াও ইনকাম করতে পারবেন। আপনার ইচ্ছা এবং পরিশ্রম থাকলে আপনি দিনে গড়ে ২০ থেকে ২০০ ডলার ইনকাম করতে পারবেন। এখন মাসিক টা আপনি নিজেই হিসাব করে নিন

সিপিএ মার্কেটথেকেপেমেন্টকিভাবেপাওয়াযায়?

সিপিএ (CPA) মার্কেট প্লেস আপনার সাধারনত তিন ধরনের পেমেন্ট থাকে। আপনি চেক Check, পেপাল PayPal,  পাইনিয়ার কার্ড Pre-paid Master Card by Payoneer or  ব্যাংক ট্রান্সফার Electronic Funds Transfer এর মাধ্যমে টাকা তুলতে পারবেন।

সিপিএ মার্কেটিং কেন শিখবেন ?

অনলাইন মার্কেটার হিসেবে আপনি বিভিন্ন ধরনের মার্কেটিং করতে পারেন। যেমন অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং, সিপিএ মার্কেটিং, ইউটিউব মার্কেটিং ইত্যাদি। অনলাইন মার্কেটার হতে হলে আপনাকে অনলাইনের অনেক বিষয় সম্পর্কে ভালো মানের ধারনা রাখতে হবে যেটা আসলে অনলাইনে নতুন একজনের পক্ষে কখনোই সম্ভব নয়। নিজের নিস সাইট বা অন্য কোন মেথডে কোন অনলাইন প্রমোশন করা অনেকটাই হাই লেভেলের কাজ যেটা করার জন্য যথেষ্ট অভিজ্ঞতা দরকার।
কিন্তু সিপিএ মার্কেটিং এর ক্ষেত্রে অনেক বেশি গবেষণা ছাড়াই শুধুমাত্র নিয়ম মত কাজ করলে প্রথম থেকেই ভালো আয় করা যায়। এমনকি দ্রুত আয় জেনারেট হওয়ার ফলে যারা অনলাইনে নতুন এবং সিপিএ দিয়ে শুরু করেছেন তারা আত্মবিশ্বাস পান।

সিপিএ অফার গুলো কোথায় পাবেন?

বিশ্বে অনেক সিপিএ নেটওয়ার্ক আছে। তবে সব সিপিএ নেটওয়ার্ক বিশ্বস্ত নয়। অনেক সিপিএ নেটওয়ার্ক আছে যাদের ভালো কোন অফার নেই। এখানে ভালো অফার বলতে যে অফার গুলো সত্যিকার অর্থে কারো উপকারে আসবে না। যেমন কোন সিপিএ নেটওয়ার্ক একটি অফার আছে স্টুডেন্ট লোনের ব্যাপারে। কিন্তু তারা আদৌ কাউকে লোন দেয় না। আবার এমন কিছু অফার তারা পাবলিশ করে যা বেশিদিন থাকে না। সুতরাং সিপিএ নেটওয়ার্ক নির্বাচনের ক্ষেত্রে একটু হিসেব করে নির্বাচন করা দরকার। বর্তমানে সেরা সিপিএ নেটওয়ার্ক গুলোর মধ্যে ৩ টি নিচে উল্লেখ করা হল। এই নেটওয়ার্ক গুলোতে আপনি ইনস্টান্ট এপ্রোভাল পাবেন। এরকম কয়েকটি নেটওয়ার্ক হলঃ

  • Adwork Media
  • CPAGrip
  • CPALead

অফার কিভাবে প্রোমোট করবেন?

যে কোন উপায়ে অফার প্রমোট যায় যেমন:

১) বিভিন্ন সোসাল মিডিয়ার মাধ্যমে

২) ইমেইল মার্কেটিং এর মাধ্যমে

৩) ওয়েব সাইটে ব্যানার এড বসিয়ে।

৪) ল্যান্ডিং পেইজ তৈরি করে, ইত্যাদি।

ফ্রিল্যান্সিং এবং সিপিএ (CPA) এর মধ্যে পার্থক্য কি?

ফ্রিল্যান্সিং বিড করে কাজ করতে হয়এবং বায়ার থেকে কাজ নিয়ে কাজকরতে হয় আর সিপিএ মার্কেটে (CPA) আপনাকে বিড করতে হবেনা ,নিজের একাউন্টে নিজেই কাজ করতে পারবেন।যেকোন সময় কাজ করতে পারবেন।এবং আপনি নিজের বিজনেস নিজেই করবেন, চাইলে আপনি টাকা  খরচ করে কাজ করতে পারেন অথবা ফ্রি মার্কেটিং ম্যাথডে কাজ করতে পারেন।


1 COMMENT

  1. This is very interesting, You are a very skilled blogger. I’ve joined your rss feed and look forward to seeking
    more of your great post. Also, I have shared your web
    site in my social networks!

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here