Categories
সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন

গেস্ট পোস্টিং কি ? বিগিনারদের জন্য গাইডলাইন !

অফ পেইজ এসইও’ র বহুল আলোচিত এবং সবচেয়ে কঠিন কাজ বলা চলে গেস্ট পোস্টিং বা গেস্ট ব্লগিং’কে। সেইফ, পাওয়ারফুল এবং কোয়ালিটি লিংক বিল্ডিং এর অন্যতম মাধ্যম এই গেস্ট ব্লগিং। কিন্তু, দিন দিন এসইও কম্পিটিশন অনেক বাড়ার কারণে এই কাজ অনেক সময় সাপেক্ষ, ব্যয়বহুল এবং ইংরজী কমিউনিকেশন দুর্বলতার কারণে কঠিন ঠেকে অনেকের কাছে। নিজের অল্প বিস্তর অভিজ্ঞতা থেকে শেয়ার করার চেষ্টা করব, যাতে আপনারা অন্তত একবার চেষ্টা করার মত আগ্রহ হলেও পান।

গেস্ট ব্লগিং কি?

গেস্ট ব্লগিংগেস্ট ব্লগিং নামেও পরিচিত – সম্পর্ক, এক্সপোজার, কর্তৃপক্ষ এবং লিঙ্কগুলি তৈরি করার জন্য অন্য ব্যক্তির ব্লগে একটি পোস্ট অবদান করার অভ্যাস। লিংক গুগল এ একটি প্রাথমিক র্যাঙ্কিং ফ্যাক্টর এবং এসইও গেস্ট ব্লগিং অন্য বিপণনের বিবেচনার পাশাপাশি অন্য ওয়েবসাইট থেকে একটি লিঙ্ক সুরক্ষিত করার একটি শক্তিশালী সুযোগ দেয়। অতিথি ব্লগিং ব্লগারের সাথে আপনার পোস্ট হোস্টিংয়ের সাথে সম্পর্ক স্থাপন করে, অতিরিক্ত এক্সপোজারের জন্য তাদের শ্রোতাদের মধ্যে ট্যাপ করে এবং শ্রোতার মধ্যে কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠায় আপনাকে সহায়তা করে।

ব্লগাররা তাদের ব্লগে উচ্চমানের সামগ্রী প্রকাশ করতে আগ্রহী, যা তারা নতুন পাঠকদের আকর্ষণ করতে এবং বর্তমান দর্শকদের সাথে ভাগ করে নেওয়ার জন্য ব্যবহার করতে পারে। এটি গেস্ট ব্লগিংকে ওয়েবসাইট মালিকদের উভয়ের জন্য একটি জয়-জয় সমাধান করে তোলে, যারা সার্চ ইঞ্জিনগুলিতে উচ্চতর স্থান পেতে চান (এবং এটি করার লিঙ্কগুলির প্রয়োজন) এবং ব্লগাররা তাদের ব্লগে আরো পাঠকদের আকর্ষণ করতে আগ্রহী।

গেস্ট পোস্ট নেয়ার ক্ষেত্রে আপনাকে কিছু দিক বিবেচণায় আনতেই হবে। তা নাহলে ওই গেস্ট পোস্ট উল্টো আপনার সাইট এর ক্ষতির কারণ হতে পারি। নিচে গেস্ট পোস্ট নিবার জন্য যেসকল বিষয় বিবেচণায় আন্তে হবে তা দেয়া হলো;

১. ওয়েবসাইট ট্রাফিক: এমন সাইট নিধারণ করুন যার ট্রাফিক আপনার মন মতো হয়। এক এক জনের পছন্দ ও বাজেট এক এক রকম তাই আপনি কেমন ট্রাফিক সাইট থেকে নিবেন তা নিধারণ করে অবশ্যই Ahrefs (পেইড) বা similarweb(ফ্রী) টুলস দিয়ে চেক করে নিতে পারেন। তারপর সিদ্ধান্ত নেন আপনি ঐ ওয়েবসাইট নিবেন কি না ?

২. ওয়েব্যাক মেশিন ডাটা: অনেক সময় দেখা যায় গেস্ট পোস্ট এর ক্ষেত্রে এক্সপয়ার ডোমেইন থেকে বা PBN সাইট থেকে লিংক নিয়েনি না বুঝার কারণে। গেস্ট পোস্ট নিবার সময় আপনি য়েব্যাক মেশিন এ যেয়ে সার্চ বক্সে ডোমেইন নাম দিয়ে চেক করে নিন ওয়েব্যাক মেশিন ডাটা ক্লিন কিনা। আপনি যদি এক্সপয়ার ডোমেইন বা PBN সাইট থেকে লিংক নিয়ে থাকেন তাহলে ঐ লিংক আপনার সাইট এর জন্য ক্ষতির কারণ হবে।

৩. যেসকল সাইট থেকে দূরে থাকা উচিত: যে সাইট থেকে লিংক নিবেন ঐ সাইট আপনি Ahrefs এ “সাইট এক্সপ্লোরার” দিয়ে চেক করার পর “লিংক ডোমেইন “এ যাবেন। যদি আপনি লিংক থেকে গ্যাম্বলিং,পর্ন/অ্যাডাল্ট সাইট পান তাহলে ঐ সাইট থেকে গেস্ট পোস্ট নেয়া বাদ দিন।

৪. গুরুতর ট্রাফিক ড্রপ: আপনি যদি Ahrefs বা SEMRush দিয়ে দেখেন সাইট এর ট্রাফিক কোনো এক সময় বেশ ভালো পরিমান ড্রপ তাহলে ওই সাইট থেকে গেস্ট পোস্ট না নেয়া ভালো। কারণ এই সাইট গুলা এমন হবার কারণ হচ্ছে  এলগোরিদম চেঞ্জ বা ম্যানুয়াল পেনাল্টি।

৫. কম পার্সেন্টেজ গেস্ট পোস্ট সাইট : যে সকল সাইট গেস্ট পোস্ট অপ্প্রভ করে কম বা তারা যেন তেনো পোস্ট বা অপ্রাসঙ্গিক পোস্ট অপ্প্রভ করে না বা তাদের সাইট এ অপ্রাসঙ্গিক পোস্ট নেয় না। তাদের সাইট এ আপনি গেস্ট পোস্ট করবেন। ঐ পোস্ট অপ্প্রভ হলে ঐটা অনেক কাজে দিয়ে থাকে।

কিভাবে করবেন?

আলোচনার সুবিধার্থে তিন ধাপে আলোচনা করছি।

১. ইমেইল কালেকশনঃ

গেস্ট ব্লগিং নিয়ে যাদের অলরেডি কিছুটা জানাশোনা আছে তারা এই বিষয়টা জেনে থাকার কথা। পূর্বেই বলেছি, আগ্রহী সাইটের মালিকরা গেস্ট পোস্ট করার বিস্তারিত প্রসিডিউর এবং কন্টাক্ট ইনফো দিয়ে রাখে তাদের সাইটে। আর, স্পেসিফিক কিছু সার্চ টার্ম দিয়ে সহজে বের করতে পারবেন সাইটগুলো।

যেমনঃ

  • inurl:guest-post-guidelines Your Keyword
  • inurl:guest-posts Your Keyword
  • inurl:write-for-us Your Keyword

উপরোক্ত সার্চ টার্ম গুলোতে Your Keyword অংশে আপনার নিশের সাথে মিল রেখে কি ওয়ার্ড লিখবেন। চেষ্টা করবেন ব্রড কিওয়ার্ড লিখতে, একদম স্পেসিফিক না। এবং বায়িং ইনটেনশনাল কি ওয়ার্ড বাদ দেয়ার চেষ্টা করবেন।

যেমনঃ আপনার নিশ যদি হয় Baby Stroller

সার্চ টার্ম হবেঃ  baby stroller “write for us”, baby care “write for us”, baby funny ideas “write for us” এরকম।

টিপসঃ অনেকে এই ধাপেই সাইটের ডিএ, পিএ, ট্রাফিক হাবিজাবি চেক করে। এটা করার দরকার নেই, সময় নষ্ট অযথা। ইমেইল পাঠানোর পর কেউ আগ্রহ দেখালে তখন চেক করবেন এগুলো, আপনার অনেক সময় বেচে যাবে।

২. মেইল পাঠানোঃ

গেস্ট পোস্টিং এর আরেকটা জরুরী বিষয় হচ্ছে এই মেইল পাঠানোর ব্যাপারটি। মেইলে মূলত কি লেখা থাকে, কি লিখতে হয় তার একটা উদাহরণ এটাঃ

Alex outreach.png

অনেকেই নেট থেকে, বন্ধুর থেকে কপি করা ইমেইল টেম্পলেইট পাঠিয়ে কোন আশানুরূপ রেসপন্স পান না। আমার কাছেও যারা চেয়েছেন, মাফ করে দিয়েন! L

সবাই মিলে হাবিজাবি লিখে একই মেইল পাঠালে সেটা স্প্যামিং এর পর্যায়ে চলে যায়। এজন্য, এই একটা ব্যাপার একদম ইউনিক রাখার চেষ্টা করবেন। এবং যত সম্ভব ফরমাল, ইন্টারেস্টিং নিজের মান ইজ্জত বাঁচিয়ে মেইল করবেন।

সাথে মাথায় রাখবেন প্রফেশনালিজম এর ব্যাপারটা। তাকে একটা লিংক দিতে মিসকিনের মত অনুরোধ না, বরং আপনার প্রফেশনাল অবস্থান যেন সে আঁচ করতে পারে সেদিকটা খেয়াল রাখা জরুরী।

৩. নেগোসিয়েশনঃ

গেস্ট ব্লগিং এর রেসপন্স রেট আসলেই অনেক কম। দিন দিন এটা আরও কমছে। ১০% ও মনে হয় ভাগ্যের ব্যাপার কিছু কিছু ক্ষেত্রে। মেইলের রিপ্লাই আসবে অনেকের থেকে। এর মধ্যেঃ কেউ শুধু ইউনিক আর্টিকেল লিখে দিতে বলবে, অনেকে টাকা চাইবে। এবং পুরো বিষয়টা নির্ভর করে সে সাইটের অবস্থা এবং আপনার আগ্রহের উপর।

নেগোসিয়েশন করবেন, মন খুলে কথা বলবেন। একবার মেইলের রিপ্লাই দিলে, সেই মেইল আর স্প্যাম বক্সে যাবেনা। ইনবক্সেই যাবে! 

ভুল ইংরেজী এবং হাবিজাবি লিখে বিশাল বিশাল মেইল পাঠানো এড়িয়ে চলবেন। অল্প কথায় কি চান না চান, তা বুঝিয়ে বলুন।

শীর্ষ ব্লগ তালিকা জন্য অনুসন্ধান করুন

সম্ভাব্যতা প্রথম ধাপটি বেশ সুস্পষ্ট: গুগল এ “Top [specific industry] Blogs List” i.e. “Top Personal Savings Blog List”  মত একটি ফ্রেজ টাইপ করুন এবং ফলাফল পর্যালোচনা।

অনুসন্ধান ফলাফল প্রতিটি পৃষ্ঠায় এক এক তালিকাভুক্ত সব ব্লগ পরিদর্শন করুন।

সম্ভবত আপনি এই ভাবে সত্যিই দুর্দান্ত ব্লগ পাবেন, তবে তাদের মধ্যে কেবল কয়েকটি অবদানকারীর অতিথি নিবন্ধগুলি গ্রহণ করতে পারে।

ধারণাটি সহজ: আপনি একটি নির্দিষ্ট ব্লগারের প্রয়োজনীয়তা অনুসারে একটি ব্লগ নিবন্ধ লিখুন এবং রিটার্নে একটি ব্যাকলিঙ্ক পান, সাধারণত নিবন্ধটির নীচে যা লেখক বক্স নামে পরিচিত।

উন্নত অনুসন্ধান

ওয়েবটিতে নির্দিষ্ট উপাদান খুঁজে পেতে আপনাকে সহায়তা করার জন্য গুগলের অনেক অনুসন্ধানের স্ট্রিং রয়েছে, যা আপনি অনুসন্ধান স্ট্রিংগুলিতে একত্রিত করতে পারেন।

আপনি যদি [“keyword” and “write for us”] আপনার ফলাফল নীচের চিত্রটির মতো দেখতে হবে:

Blogging write for us search string.png

এই অনুসন্ধান কমান্ডটি আপনাকে “ব্লগিং” এবং “আমাদের জন্য লিখুন” উভয়ই ব্যবহার করে এই ক্ষেত্রে পৃষ্ঠাগুলির সঠিক বাক্যাংশগুলি সমন্বিত পৃষ্ঠাগুলি দেখাবে।

গেস্ট পোস্ট/লিংক নেয়ার আগে যে সাইটের যে বিষয়গুলো খেয়াল করতে হবেঃ

অনেকেই ডিএ, পিএ সহ হাবিজাবি নানান বিষয়াদি দেখেন। এসব অত বেশী জরুরী কিছু বলে মনে করিনা। সাইটটা দেখতে ন্যাচারাল কিনা, সাইটের মালিক কি উদ্দেশ্যে সাইট চালাচ্ছে, রিয়েল কিছু ট্রাফিক(অন্তত ৩০০-৫০০+) এবং ব্যাকলিংক প্রোফাইল চেক করে আপনি একটা সাইট সম্পর্কে আইডিয়া পেতে পারেন।

কারো কোন প্রশ্ন থাকলে কমেন্ট সেকশনে লিখুন। আর্টিকেল পড়ে আপনার অনুভূতি জানাতে ভুলবেন না। প্রথম যেকোন কাজই কঠিন এবং ভুলে ভরা থাকে। ভুল থাকলে ধরিয়ে দিবেন। 

6 replies on “গেস্ট পোস্টিং কি ? বিগিনারদের জন্য গাইডলাইন !”

গেস্ট পোস্ট ব্যাপারটি কী? এটি আজকাল এতো জনপ্রিয় হচ্ছে কেন?

Hi there this is somewhat of off topic but I was wanting to know if blogs use WYSIWYG editors or
if you have to manually code with HTML. I\’m starting a blog soon but have
no coding know-how so I wanted to get advice from someone with experience.
Any help would be enormously appreciated!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *