প্রথমত, আপনাকে একটা সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা করতে হবে। আপনি কত সময়ের মধ্যে আপনার লক্ষ্যে পৌছাতে চান, এর জন্য কি কি করতে রাজি আছেন এবং কতক্ষণ কাজ করতে পারবেন। সে অনুযায়ী একটা রুটিন করে ফেলুন।

দ্বিতীয়ত, আপনার ভিডিও/চ্যানেলের নিশ যাই হোক না কেনো নিয়মিত রুটিন মাফিক ভিডিও আপলোড করতে হবে। সপ্তাহ, দিন, ঘন্টা, মিনিট কাটায় কাটায় মানতে হবে।

তৃতীয়ত, এর ফাঁকে চোখকান খোলা রেখে সুযোগ খুঁজতে হবে যে আপনার নিশের কোনো ভিডিও ভাইরাল হয়েছে কিনা বা বর্তমানে কি ট্রেন্ডিং চলছে। আপনাকে ট্রেন্ড ধরে এগুতে হবে অর্থাৎ ট্রেন্ড রিলেটেড ভিডিও বানাতে হবে।

চতুর্থত, কোয়ালিটি, কোয়ান্টিটি দুটোই সমান গুরুত্বপূর্ণ ইউটিউবে। তাই টার্গেট রাখবেন যত বেশি পারেন কন্টেন্ট তৈরি করার এবং তা অবশ্যই মানসম্পন্ন। ভিডিওর সাথে থাম্বনেইল এবং টাইটেল/ডিস্ক্রিপশন/এসইওতে সমান মনোযোগ দিতে হবে।

পঞ্চমত, আপনার টাকা থাকলে বুস্ট করতে পারেন। এর বিকল্প কিছু নেই। ভিডিও বিজ্ঞাপন দিন, গুগল এডস এ। এর ফলে আপনার মনিটাইজেশন সকল শর্ত পূরন করে ফেলতে পারবেন খুব দ্রুত ও সহজেই। ফ্রি ট্রাফিকে অনেক সময় লেগে যায়। তাই বাজেট থাকলে ভিডিও বিজ্ঞাপন দিতে পারেন।

ইউটিউবে ভিডিও জনপ্রিয় করতে আপনাকে কয়েকটি বিষয় এর দিকে নজর দিতে হবে । বিষয় গুলি হলো :

1 . ভিডিও টাইটেল : ভিডিও টাইটেল হলো ইউটিউবের ভিডিও জনপ্রিয় করানোর প্রথম স্তম্ভ । আপনি টাইটেল দেওয়ার সময় এটা লক্ষ রাখবেন যে , ভিডিও টাইটেল দেখেই আপনার ভিডিওর সমস্ত বিষয় ভিউয়ার ভালো করে বুঝে যায় ।

2. ডেস্ক্রিপশন : ভিডিওর ডেস্ক্রিপশন যতটা টা না সাধারণ ভিউয়ার এর কাছে জরুরি তার চেয়েও বেশি জরুরি ইউটিউবের কাছে । ইউটিউবে ডেইলি অনেক অনেক ভিডিও আপলোড হয় , সব গুলি ভিডিও ইউটিউব দেখার সময় পায় না , বা তারা দেখার চেষ্টাও করে না । কিন্তু আপনার ভিডিও এর ডেস্ক্রিপশন পার্ট এর প্রথম 150 ওয়ার্ড ইউটিউবের bot গুলো দ্বারা চেক করা হয় এবং ঐ 150 শব্দই আপনার কন্টেন্টের মান কেমন সেটা ইউটিউব কে বুঝিয়ে দেয় । অর্থাৎ এটাই সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ ।

3.ট্যাগস : কোনো ভিউয়ার কোনো একটা নির্দিষ্ট টপিকের উপর ভিডিও চায় , সে এসে তার চাহিদা মতো key word ইউটিউবে সার্চ দিলো । এখন ইউটিউবে তাকে তার সার্চ অনুযায়ী ভিডিও খুঁজে দেবে । এই সময় ইউটিউব আপনার ভিডিও এর ট্যাগস গুলো চেক করে দেখবে । আপনার ভিডিও এর ট্যাগস গুলোতে যদি ভিউয়ার এর সার্চ করে key word টা উপস্থিত থাকে তাহলে আপনার ভিডিও ওই ভিউয়ার এর সার্চ রেজাল্টে চলে আসবে । আপনি আপনার ভিডিওটিকে ভালো ভাবে পর্যবেক্ষণ করে ভাবুন যে আপনি যদি ভিউয়ার হতেন তাহলে আপনি কোন keyword সার্চ করতেন । সেগুলো কেই ট্যাগ হিসেবে দিয়ে দেন । তাছাড়াও গুগলে এ keyword খুঁজে দিতে পারে এমন অনেক ওয়েবসাইটে আছে । আপনি আপনার ভিডিও এর টপিক টা ইউটিউবে এ সার্চ করুন , যেই রেজাল্ট গুলো আসবে তার মধ্যে থেকে প্রথম ভিডিও এর ট্যাগস গুলো কপি পেস্ট করে নিন । এটাই সুবিধার হবে ।

4. ভিডিও কোয়ালিটি : এখন বেশিরভাগ ডিভাইসে hd সাপোর্ট করে । ইউটিউব চায় তাদের ইউজার রা বেস্ট কোয়ালিটির ভিডিও দেখুক তাই তারা 1080p ভিডিও কে সার্চ রেজাল্টের উপরে রাখবে তারপর 720p তারপর অন্য ভিডিও গুলো । তাই ভিডিও কোয়ালিটি ভালো রাখাটাই জরুরি ।

5. আমার তরফ থেকে একটা pro টিপস : আপনি লক্ষ করে দেখবেন যে কোনো ডান্স ভিডিও এর ডেস্ক্রিপশন এ গানের ডিটেইলস তা দেওয়া থাকে অথচ যে আপলোড করেছে সে ডেস্ক্রিপশন এটা দেয়নি । অর্থাৎ ইউটিউব আপনার কটেন্ট গুলো দেখছে বা শুনছে । আপনি এটাকেই ব্যাবহার করুন । অর্থাৎ আপনি যেই keyword এর উপর ভিডিও বানিয়েছেন সেই keyword টা আপনি ভিডিওর মাঝখানে কয়েকবার উচ্চারণ করুন , হতে পারে আপনার ভিডিওটা ইউটিউব শুনছে ।

6. Content : কন্টেন্ট হলো সবচেয়ে বেস্ট জিনিস ইউটিউবে ভিউ পেতে হলে । আপনি আপনার ভিডিওকে সার্চলিস্ট এ নিয়ে চলে আসলেন কিন্তু যদি কন্টেন্ট ভালো না হয় ভিউয়ার ভিডিওটি দেখবে না । এরকম যদি অনেকবার হয় তবে ইউটিউব নিজে থেকেই ভিডিও টিকে সার্চ রেজাল্টের নীচে নামিয়ে দিবে । তখন উপরে যা বললাম সব বৃথা হয়ে যাবে ।

** ভিডিও সার্চ করলে উপরের যে ছবি টা দেখা যায় সেটার নাম আমার মনে পড়ছে না আমার এই মুহূর্তে । কিন্তু এটা খুব ইম্পরট্যান্ট । সার্চ রেজাল্টে তো অনেক ভিডিও দেখা যাবে , সেগুলোর মধ্যে যেটার প্রথম লুক তা ভালো হবে ভিউয়ার সেটাই দেখবে । অর্থাৎ আপনি বুঝে গেছেন হয়তো । নাম তা মনে না পারার জন্য আমি দুঃখিত , গুগলে যে সার্চ দিব তার জন্য তো কিছুটা মনে পড়তে হবে আমার সেটা মনেই পড়ছে না ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here